সাম্প্রতিকস্বাস্থ্য সমস্যা

Worm Infections in Children – শিশুর কৃমি ও প্রতিকার

 

Worm Infections in Children – শিশুর কৃমি ও প্রতিকার 



শিশুর কৃমি আমাদের মত উন্নয়নশীলদেশেরে বড় একটি স্বাস্থ্য সমস্যা। আমাদের শিশুরা অনেক সময় পেট ব্যথায় আক্রান্ত হয়। খাবার গ্রহণে অরুচি, পাতলা বা কষা পায়খানা, বমি বমি ভাব হওয়া, পায়খানার রাস্তায় চুলকানি হওয়া ইত্যাদি সমস্যাগুলো শিশুদের মাঝে প্রায়ই দেখা যায়। এগুলো সাধারনত Worm Infections in Children – শিশুর কৃমি অর্থাৎ শিশুর পেটে কৃমি হওয়ার লক্ষণ। এমনকি লক্ষণহীন ভাবেও অসনক শিশু কৃমি দ্বারা আক্রান্ত থাকতে পারে।

শুধু শিশুরাই না আমাদের দেশে অনেক ক্ষত্রেই পূর্ণ বয়স্ক মানুষকে কৃমিতে আক্রান্ত হয়ে নানা রকম অপুষ্টি জনিত সমস্যায় ভুগতে দেখা যায়। তাই এ বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি জরুরী। নাহলে সহজে সমাধান যোগ্য আমাদের এই সাস্থ্য সমস্যাটি নানা রকম জটিল সমস্যার কারণ হয়ে দাড়াতে পারে।

ভাল থাকুন ডট কম  (ValoThakun.Com) এর আজকের লেখা  Worm Infections in Children – শিশুর কৃমি ও প্রতিকার নিয়ে

শিশুদের মাঝে  কৃমির সংক্রমণের প্রধার কারণগুলো হচ্ছে: 

(Causes of Worm Infections in Children)

  • অস্বাস্থ্যকর টয়লেট ব্যবস্থা
  • অপরিষ্কার ঘরবাড়ি
  • দূষিত পানির ব্যবহার
  • টয়লেট শেষে ভাল ভাবে হাত না ধোয়া
  • খাবার তৈরি বা গ্রহণের আগে হাত পরিষ্কার না করা
  • হাতের নখ বড় রাখা
  • দাঁত দিয়ে নখ কাটা ইত্যাদি।



বিভিন্ন ধরনের কৃমি  স্বাস্থ্য সমস্যা

মানুষের পেটে বিভিন্ন রকম কৃমি আক্রান্ত করতে পারে। এদের মাঝে গুড়াকৃমি, গোলকৃমি ও ফিতা কৃমির প্রাদুর্ভাব আমাদের দেশে বেশি। কখনো কখনো এমনও হয় যে, গোলকৃমি শিশুর নাক-মুখ দিয়ে বেড়িয়ে আসে। এমনকি এটি শিশুর শ্বাসনালীতেও প্রবেশ করে অনেক ক্ষতি করতে পারে। এ ছাড়া, গোলকুমি শিশুর অন্ত্রনালী এবং পিত্তনালীতে গিয়ে প্রতিবন্ধকতা তৈরি করতে পারে। ফিতাকৃমি শিশুর অন্ত্রের গায়ে লেগে থেকে রক্তপাত ঘটাতে পারে। ফলে ধীরে ধীরে শিশুর রক্তশূন্যতা দেখা দেয়।গুঁড়া কৃমি পায়খানার রাস্তায় চুলকানির জন্য মূলত দায়ী।

 

শিশুর কৃমি (Worm Infections in Children) অপুষ্টি (malnutrition):

কৃমির কারণে অনেক শিশুই অপুষ্টিতে আক্রান্ত হয় এবং রক্তশূন্যতা দেখাদেয়। এছাড়া ক্রমির কারণে অন্ত্রে খাবারের পুষ্টি উপাদান গুলো পরিপাক ও পরিশোষণ হতে পারে না। কৃমির দীর্ঘ মেয়াদী সংক্রমণ শিশুকে দূর্বল করে ফেলে। এছাড়া শিশুর খাদ্য গ্রহণে অরুচি হয়।  ধীরে ধীরে শিশুর শারীরিক ও মানসিক বিকাশ বাধাগ্রস্থ হতে পারে।

চিকিৎসা (Treatment of Worm Infections)

Albendazole বা Mebendazole অথবা Pyrantel pamoate দিয়ে সাধারণত শিশুর কৃমির চিকিৎসা করা হয়। আমাদের দেশে সরকার স্কুল হ্যাল্থ প্রকল্পের মাধ্যমে বছরে দুই বার স্কুলে  শিশুদের কৃমি নাশক ওষুধ (Albendazole) খাওয়ানো হয়। তথাপিও অভিভাবকদের অসচেতনতা সহ নানা কারণে এই কার্যক্রমও শতভাগ সবসময় সফল হয়না। আবার ৬ বছরের কম বয়সি শিশুরা যারা স্কলে যায়না তারাও এই কার্যকম থেকে বাদ পড়ে যায়।

তাই পারিবারিক বা ব্যক্তি পর্যায়ে সচেতনতা ছাড়া সফল ভাবে এর চিকিৎসা করা সম্ভব না।

ভাল থাকুন ডট কম  (ValoThakun.Com) এর আজকের লেখা  Worm Infections in Children – শিশুর কৃমি ও প্রতিকার নিয়ে



কৃমি প্রতিরোধে আমাদের করনীয় (How to prevent Worm Infections in Children:

১। গৃহস্থালির কাজে নিরাপদ ও বিশুদ্ধ পানি ব্যবহার করতে হবে।
২। স্বাস্থ্য সম্মত টয়লেট ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে।
৩। খাবারের আগে বা টয়লেটের পরে নিয়মিত হাত ধোয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে।

৪। শিশুদের হাতের নখ বড় রাখা যাবে না এবং দাঁত দিয়ে নখ কাটার অভ্যাস পরিহার করতে হবে।
৫। সময়মতো কৃমি নাশক ওষুধ গ্রহণ করতে হবে।
৬। মানুষের অপরিশোধিত মল জমির সার হিসেবে ব্যবহার করা যাবে না।

সবশেষে, কৃমি সংক্রমন প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধি ও সাধারণ স্বাস্থ্য নিয়ম মানাটাই একমাত্র সফল পদ্ধতি। আর নিয়মিত চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী নির্দিষ্ট সময় পরপর কৃমির ঔষধ সেবন বৃদ্ধি করতে হবে।

—————————————-

আরো পড়ুন-

অটিজম (Autism): What we should know?

Weight loss tips বা ওজন কমানো – এর সহজ টিপস

—————————————–

Dr. Hasan Ebna Amin

 



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Cyclone Michaung, nine killed in floods. দক্ষিণ ভারতে ঘূর্ণিঝড় মিগজাউমের তাণ্ডব।